onurag.com https://www.onurag.com/2022/04/friendship.html

বন্ধুত্ব | বন্ধুত্ব নিয়ে কিছু কথা!

আসসালামুয়ালাইকুম।

প্রিয় পাঠকেরা, কেমন আছেন? আশা করি সকলেই ভালো আছেন। আলহামদুলিল্লাহ আমিও ভালো আছি। সত্যি বলতে আসলে অনেকদিন পর ব্লগে লিখতে বসেছি। গত কয়েকমাস ধরে তেমন একটা লেখা হয় না। সে যাহোক, আজকে কোন রচনা, কোন টিপস ট্রিকস ইত্যাদি কোন কিছু নিয়েই লিখবো না। আজকে আমি লিখতে যাচ্ছি বন্ধুত্ব নিয়ে। হ্যাঁ, বন্ধুত্ব নিয়ে। তো চলো শুরু করা যাক।

বন্ধুত্ব | বন্ধুত্ব নিয়ে কিছু কথা!
বন্ধুত্ব | বন্ধুত্ব নিয়ে কিছু কথা!

বন্ধুত্ব...

বন্ধুত্ব খুবই পবিত্র একটা জিনিস। বন্ধুত্ব হচ্ছে মানুষের মধ্যকার পারস্পরিক সম্পর্ক, আত্নার বন্ধন। ইহা কোন সময় টাকা কিংবা অর্থের বিনিময়ে পাওয়া যায় না। হ্যাঁ, আপনি পেতে পারেন। কিন্তু তা হবে কেবলই দুধের মাছি! বন্ধুত্বের জন্য প্রয়োজন নেই আহামরি কোন কিছুর। কেবলই দরকার একটা জিনিস। সেটা হচ্ছে পবিত্র মন। ইহা ব্যাতীত খাঁটি বন্ধুত্ব কোন সময়ই সম্ভব না। জীবণে হাজার হাজার দুধের মাছি অপেক্ষা কেবল একজন খাঁটি বন্ধু অনেক মূল্যবান। এই জীবণে কখনো আপনার খারাপ সময় যাবে, আবার কখনো বা ভালো। নিজেকে অনেক সময় মনে করবেন অসহায়। তখন নিঃস্বার্থভাবে একজনই আপনার পাশে এসে দাঁড়াবে, আপনার কষ্টগুলোকে অনুভব করার চেষ্টা করবে। সে হচ্ছে আপনার বন্ধু। স্রোতের ন্যায় প্রবাহিত জীবণের সাফল্যকালে আপনি যেমন পাবেন অনেক বন্ধু, তেমনি আপনার ব্যার্থতায় বেরিয়ে আসবে, কে আপনার প্রকৃত বন্ধু। অনেকটা ফিল্টারিং এর মতো। কষ্ট হলেও সত্যিটা বলতেই হচ্ছে, মনে করেন আপনার একজন অনেক ভালো বন্ধু আছে, সে কিন্তু এখন আপনার লেভেলের। আপনিও স্কুলে পড়েন, সেও স্কুলে। যখন কলেজে ভর্তি হবেন, তখন মনে করেন আপনার থেকে সে আরো অনেক ভালো কলেজে ভর্তি হয়েছে। সেখানে সে নতুন সঙ্গী পাবে। ব্যাস, ভুলে যাবে আপনাকে। দেখা হলে কেবল ভালো-মন্দ জিজ্ঞাসার মধ্যেই থাকবে আপনাদের মধ্যকার সম্পর্ক। তারচেয়ে বেশি অন্তরঙ্গতা নয়! এভাবে সে যত উপরের লেভেলে উঠতে থাকবে ততোই ভুলতে থাকবে অতীত। আবার সেটা এতদূর গড়ানোরও দরকার হয় না অনেক সময়। তার আগেই ভুলে যেতে বসবে আপনাকে। খারাপ লাগলো কথাটা? মিলিয়ে নিয়েন জীবণের সঙ্গে। আসলে প্রকৃত বন্ধু পাওয়া অনেকটা মূল্যবান খনি পাওয়ার মতো। আপনার ভালো সময়েও সে থাকবে, খারাপ সময়েও সে থাকবে। যদি পেয়ে থাকেন তবে তো আপনি সোনায় সোহাগা!

সে যাহোক, আপনি বলুন তো আপনি কাকে সবচেয়ে বেশি ভালোবাসেন? কাকে? আমি বলে দিই। আপনি গভীরভাবে চিন্তা করে দেখেন, আপনি নিজেকেই সবচেয়ে বেশি ভালোবাসেন। তার আর ব্যাখ্যা দিলাম না। আপনি নিজের মাথা খাঁটিয়ে দেখুন।

আবার এটাও মনে রাখবেন, "সঙ্গ দোষে, লোহা ভাসে।" আশা করি এটা আর ভেঙে বোঝাতে হবে না। কারণ এটার আলাদা ভাবসম্প্রসারণই পড়েছেন আপনারা।

বন্ধু নির্বাচনে কে গরিব, কে ধনী? কে সাদা, আবার কে-ই বা কালো, কে মোটা, কে-ই পাতলা এসব দেখার কোন দরকার নেই। তৈরী করেন বন্ধু! তবে তা বুঝে। সোনা বের করতে যেমন বালি, পাথর বা বিভিন্ন খনিজকে ফিল্টার করতে হয়, প্রকৃত বন্ধুর পরিচয় পাবার ক্ষেত্রে আপনাকে তাও করতে হবে না। এটা কেবল তখনই বুঝতে পারবেন, যখন আপনি পরবেন কোন কঠিন বিপদে!

আবার কাউকে একবার দেখেই মনে করবেন না যে সে আপনার পাশে নেই। কেননা অনেক সময় অনেকে অনেক বিষয় সম্পর্কে অবগত থাকে না। তবে কখনো কারো সাথে ছিন্ন করবেন না সম্পর্ক। আপনার সাথে কোন অন্যায় করলে তাকে মনে মনে পারলে ক্ষমা করে দিবেন। তাতে আপনার মন প্রশান্তি পাবে। আর না হলে সে কষ্ট কেবই পোড়াবে আপনার অন্তর!

সবার জন্য শুভকামনা। ধন্যবাদ, পোস্টটি পড়ার জন্য।

আসসালামুয়ালাইকুম।

ধন্যবাদন্তে

মোঃ সিহাব উদ্দিন মাহি।

এডমিন (অনুরাগ.কম)

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

নটিফিকেশন ও নোটিশ এরিয়া